মেনু নির্বাচন করুন
খবর

প্রশাসন ক্যাডারের সদস্যদের মাধ্যমে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাসগৃহ পাচ্ছেন দুই অসহায় নারী

বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের প্রশাসন ক্যাডারের সদস্যদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন সুবিধা বঞ্চিত মানুষদের ভাগ্যোন্নয়নের জন্য বহুবিধ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তার মধ্যে একটি হলো মুজিববর্ষে সারাদেশে গৃহহীন মানুষের জন্য ১০০ টি গৃহনির্মাণ করে দেয়া। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সংগঠনটি এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বান সাড়া দিয়ে অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের আর্থিক অনুদানে এই ঘরগুলো নির্মাণ করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় কর্মরত প্রশাসন ক্যাডারের সকল সদস্যের আর্থিক অনুদানে দুটি বাসগৃহ নির্মাণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস এসোসিয়েশন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। সিদ্ধান্ত মোতাবেক চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায় ১টি ও শিবগঞ্জ উপজেলায় ১টিসহ মোট ২টি গৃহহীন দুস্থ পরিবারকে গৃহ নির্মাণ করে দেয়া হচ্ছে। এর মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের বিদিরপুরে কোহিনূর বেগম নামের এক প্রতিবন্ধী নারীকে একটি ও জেলার শিবগঞ্জ পৌরসভার দৌলতপুর এলাকায় মোসা. লুৎফন নেসা নামে এক নারীকে একটি রয়েছে। কোহিনূর বেগম রেলবস্তিতে থেকে ভিক্ষাবৃত্তির মাধ্যমে জীবন যাপন করেন। তাকে গৃহনির্মাণসহ পুনর্বাসনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। অপর দিকে মোসা. লুৎফন নেসা একজন হতোদরিদ্র নারী। তার একজন প্রতিবন্ধী মেয়ে রয়েছে। বর্তমানে তিনি অন্যের বাড়িতে রয়েছেন। গৃহ ২টিতে থাকবে ২টি করে শোবার ঘর, ১টি রান্নাঘর, ১টি টয়লেট ও ১টি বড় বারান্দা। গৃহ নির্মাণের জন্য যার জমি আছে কিন্তু ঘর নেই এমনদের অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। ইতোঃপূর্বে নির্মিত দুর্যোগ সহনীয় ঘরের মডেলটিকে এই ক্ষেত্রে অনুসরণ করা হয়েছে। তবে ওই মডেলকে একটু পরিবর্তন করে দৃষ্টিনন্দন ডিজাইনটি চ‚ড়ান্ত করা হয়।
শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) সকালে বিদিরপুরে ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে কোহিনূর বেগমের গৃহটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক ও বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি এ জেড এম নূরুল হক।
উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন, পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মহসীনসহ অন্য দপ্তরের কর্মকর্তবৃন্দ। এসোসিয়েশনের সদস্যদের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এ.কে.এম. তাজকির-উজ-জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাকিউল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাজমুল ইসলাম সরকারসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।
জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হক সাংবাদিকদের বলেন- জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ছিল দেশে একটি মানুষও না খেয়ে মরবে না, একটি মানুষও গৃহহীন থাকবে না। সকল মানুষকে নিয়ে গড়ে তোলা হবে স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ। এবছর জাতির পিতার জন্মশতবর্ষ চলছে। মুজিববর্ষে জাতির পিতার সেই স্বপ্ন পূরণে জেলা প্রশাসন নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। জেলা প্রশাসনের এই গৃহনির্মাণ প্রকল্প অব্যাহত থাকবে। জেলা প্রশাসক জানান, এই মাসেই ১০০ জন মহিলা ভিক্ষুককে পূর্নবাসন করা হবে। তিনি বলেন-জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণে প্রশাসন ক্যাডারের সকল সদস্য তাদের মেধা শ্রম একত্রিত করে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সকল পেশার মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন-আমরা জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা আমরা গড়বোই।

ছবি


ফাইল


প্রকাশনের তারিখ

২০২০-০৯-১১

আর্কাইভ তারিখ

২০২১-০১-৩০


Share with :

Facebook Twitter